C/O বা Care of এর অর্থ কি? এর ব্যবহার এবং প্রয়োজনীয়তা

  (5/5, 1 vote)

যখন এমন কাউকে চিঠি পাঠানো হয়, যাদের নামে সচরাচর চিঠি আসে না; সেক্ষেত্রে চিঠির খামে যথাযথভাবে প্রাপকের সম্বোধন করাটা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে যায়। “C/O”, “Care Of” কিংবা “প্রযত্নে” বাক্যাংশটি ব্যবহার করার মাধ্যমে সেই চিঠিটি যে যথাযথ প্রাপকের কাছে পৌঁছে যাবে এবং ফেরত চলে আসবে না সেই বিষয়টিকেই কিছুটা নিশ্চয়তা দান করে।

এই নিবন্ধটিতে আমরা “care of” বা “প্রযত্নে” বাক্যাংশটি কী? এর ব্যবহার, প্রয়োজনীয়তা কী? সে বিষয়গুলোকেই কিছু উদাহরণের সাথে জানবো।

“C/O” বা “care of” এর অর্থ কি?

প্রযত্নে” বা “Care of” বলতে বোঝানো হয়- অন্য কারো মাধ্যমে বা অন্য কারো “যত্নে”। প্রায়শই এই শব্দগুচ্ছটি ব্যবহার করে এমন কাউকে চিঠি পাঠানোর ক্ষেত্রে উল্লেখ করা হয়, যাদের কিনা নিজস্ব ঠিকানা সেটি নয়, যেই ঠিকানায় চিঠিটি পাঠানো হচ্ছে বা হয়েছে।

চিঠির খামে “প্রযত্নে” শব্দাংশটি ব্যবহারের ফলে মূলত আরো দুটি বিষয় নিশ্চিত হয়, যা হল-

  • চিঠিটি যথাস্থানে এবং সঠিক প্রাপকের কাছেই পৌঁছে যাবে, প্রাপককে না পেয়ে চিঠিটি আবার প্রেরকের কাছে ফেরত চলে আসবে না।
  • চিঠিটি যাদের হাতে পৌঁছেছে তাদেরকে জানানো যে, চিঠিটি মূলত তাদের জন্য প্রেরিত হয় নি বরং তারা সঠিক ব্যক্তিকে চিঠিটি পৌঁছে দেওয়ার জন্য চিঠিটি পেয়েছেন।

“Care of” কখন ব্যবহার করবেন?

প্রাপকের প্রাথমিক ঠিকানা যখন জানা নেই কিংবা যে ঠিকানায় প্রাপক সাধারণত চিঠি পেয়ে থাকেন না- সেক্ষেত্রে "প্রযত্নে" শব্দপ্রত্যয়টি চিঠির খামের ঠিকানায় উল্লেখ করে দেয়া হয়।

উদাহরণস্বরূপ, যদি এমন কারো কাছে আপনার চিঠি পাঠাতে হয় যার বাড়ির ঠিকানা জানেন না, তবে আপনি তার অফিসের ঠিকানায় চিঠিতে পাঠাতে পারেন, সেক্ষেত্রে "কেয়ার অফ" ব্যবহার করতে পারেন।  

 

রাকিব হাসনাৎ

প্রযত্নে, আলিফ কর্পোরেশন

৫১০/বি, জাফরাবাদ রোড,

চট্টগ্রাম শিল্পাঞ্চল, চট্টগ্রাম।   

 

কোন পরিস্থিতিতে বা কখন কখন "প্রযত্নে" ব্যবহার করতে পারবেন তার কিছু উদাহরণ এখানে দেওয়া হল:

  • কর্মস্থলে চিঠি পাঠাতে: আপনি যদি কারো বাড়ির ঠিকানা না জানেন, তবে আপনি প্রাপকের কর্মস্থলের নামের আগে "প্রযত্নে”, “C/o” “care of" ব্যবহার করে তাদের কর্মক্ষেত্রে চিঠিপত্র পাঠাতে পারেন।
  • হোটেল বা সাময়িক ঠিকানায় চিঠি/ পার্সেল পাঠাতে: সাময়িক ঠিকানা কিংবা হোটেলে যদি কাউকে চিঠিপত্র পাঠাতে হয়, কিন্তু তাদের রুম নম্বর আপনি জানেন না। এমন অবস্থায় হোটেলের নামের আগে "কেয়ার অফ" ব্যবহার করতে পারেন, যাতে তারা চিঠি বা প্যাকেজটিকে যথাযথ প্রাপকের কাছে সরবরাহ করতে পারে।
  • অবাঞ্ছিত মনোযোগ এড়িয়ে চিঠি পাঠাতে: প্রাপক ব্যাতীত অন্য কারো হাতে চিঠিটি না পড়ুক, এমন অবস্থায় খামের উপরে “প্রযত্নে” যোগ করে দেয়া যেতে পারে।
  • গুরুত্বপূর্ণ তথ্য প্রেরণের ক্ষেত্রে: গুরুত্বপূর্ণ নথি বা তথ্য পাঠানোর ক্ষেত্রে প্রেরিত তথ্য, নথির গোপনীয়তা রক্ষার্থে খামের উপরে “C/o", “প্রযত্নে” কিংবা “care of” লিখে দেয়া হয়। 

বর্তমানে ইমেলের প্রচলনের ফলে চিঠি আদান-প্রদানের বিষয়টি কিছুটা সেকেলে হয়ে গেলেও বর্তমানে পার্সেল পাঠানোর ক্ষেত্রে এখনো c/o এর ব্যবহার দেখা যায়। পোস্টাল সার্ভিসের এই বিশেষ সুবিধাটি উপলব্ধ করার ক্ষেত্রে সঠিকভাবে বিন্যস্ত করণের দিকে খেয়াল রাখা প্রয়োজন, নতুবা চিঠি বা পার্সেলটি পুনরায় ফেরত চলে আসার সুযোগ থাকে। 

নিচে ফরম্যাটটি উল্লেখ করে দেয়া হল- 

প্রাপকের নাম

প্রযত্নে, ব্যক্তি/অফিস/হোটেল এর নাম

ঠিকানা

 

 

Published By
About us  | Privacy Policy | Terms of Service
© 2022 grammarbd.com All Rights Reserved.